১৮ই এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, বৃহস্পতিবার

মনে মনে মানত করলে কি তা পূরণ করা ওয়াজিব?

আপডেট: নভেম্বর ২৯, ২০২৩

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন

শরিয়ত আবশ্যক করেনি এমন নফল কোনো আমল নিজের ওপর আবশ্যক করে নেওয়াকে ‘নজর’ বা মানত বলে। মানত শর্তযুক্ত ও শর্তমুক্ত হতে পারে। কেউ যদি বিশেষ উদ্দেশ্য পূরণের শর্তে কোনো আমল করার প্রতিজ্ঞা করে, তাহলে তা শর্তযুক্ত মানত। শর্ত ছাড়া কোনো আমল নিজের ওপর আবশ্যক করে নিলে তাও মানত হিসেবে গণ্য হয়।

মানত করলে তা পূর্ণ করা আবশ্যক। কোরআনে আল্লাহ বলেছেন,
ثُمَّ لۡیَقۡضُوۡا تَفَثَهُمۡ وَ لۡیُوۡفُوۡا نُذُوۡرَهُمۡ وَ لۡیَطَّوَّفُوۡا بِالۡبَیۡتِ الۡعَتِیۡقِ
তারপর তারা যেন পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন হয়, তাদের মানতসমূহ পূরণ করে এবং প্রাচীন ঘরের তাওয়াফ করে। (সুরা হজ: ২৯)

আরেক আয়াতে আল্লাহ তার প্রিয় বান্দাদের বর্ণনায় বলেছেন,
یُوۡفُوۡنَ بِالنَّذۡرِ وَ یَخَافُوۡنَ یَوۡمًا کَانَ شَرُّهٗ مُسۡتَطِیۡرًا
তারা মানত পূর্ণ করে এবং সেদিনকে ভয় করে যার অকল্যাণ হবে ব্যাপক। (সুরা দাহর: ৭)

মানত হওয়ার জন্য মুখে উচ্চারণ করা জরুরি। মনে মনে মানত করলে মানত হয় না। কেউ যদি কোনো বিপদে পড়ে বা কোনো ইচ্ছা পূরণের জন্য মুখে উচ্চারণ না করে শুধু মনে মনে কোনো ইবাদত বা নেক কাজের নিয়ত করে, তাহলে তা মানত গণ্য হবে না এবং ওই নেক কাজটি করা ওয়াজিব হবে না।

  • ফেইসবুক শেয়ার করুন
Website Design and Developed By Engineer BD Network